‘সরকারি কর্মচারীদের দেশপ্রেম ও জনসেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে’ভাসানচর থেকে পালানো ১৪ রোহিঙ্গা আটকঢাকার সঙ্গে একমাত্র যোগাযোগ উড়োজাহাজেবুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত ‘যুদ্ধের চেয়ে ৪ গুণ বেশি মার্কিন সেনা মারা গেছে আত্মহত্যায়’
No icon

আগামী সপ্তাহে চালু হচ্ছে আইসোলেশন সেন্টার

দেশে মহামারি করোনাভাইরাস রুদ্রমূর্তি ধারণ করেছে। টানা দুই সপ্তাহ রেকর্ড সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছে।প্রতিদিনই এই সংখ্যা আগের দিনের তুলনায় বাড়ছে। রোগী সামাল দিতে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে।এমন পরিস্থিতিতে রাজধানীর মহাখালীর ডিএনসিসি কাঁচাবাজারকে আইসোলেশন সেন্টারে রূপান্তরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এখানে দুইশো শয্যার আইসিইউ/এইচডিইউসহ হাজার শয্যার হাসপাতাল চালু করা সম্ভব হবে বলেও জানানো হয়েছে।তবে প্রয়োজনীয় অনেক যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসা সরঞ্জামের সরবরাহ এখনো নিশ্চিত করা হয়নি। মঙ্গলবার মহাখালীতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মার্কেটে নির্মিতব্য কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল পরিদর্শনে যান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। পরিদর্শনকালে তিনি বলেন, এক বছর ধরে মহাখালী কাঁচাবাজারের ওই স্থাপনা বিদেশগামী মানুষের করোনা পরীক্ষা করা হতো।এখন এই স্থাপনাটিতে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় হাসপাতাল স্থাপন করা হবে। এখানে ২০০টির বেশি আইসিইউ শয্যা স্থাপন করা হচ্ছে। এক সঙ্গে এক হাজার ২০০-এর বেশি মানুষ করোনা চিকিৎসা নিতে পারবেন।

এতদিন এক লাখ ৮০ হাজার ৫৬০ বর্গফুট আয়তনের ফাঁকা এ মার্কেটটি করোনার আইসোলেশন সেন্টার এবং বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ল্যাব হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছিল। এখন করোনা হাসপাতাল চালু হলে বিদেশগামীদের জন্য এক পাশে পৃথকভাবে জায়গা রাখা হবে।স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রতিরোধে ঢাকার সব হাসপাতালে শয্যা বাড়ানোর ব্যবস্থা করছি। আড়াই হাজার শয্যাকে পাঁচ হাজার করা হয়েছে, এর চেয়ে বেশি বাড়ানো সম্ভব নয়।প্রতিদিন যদি চার-পাঁচ হাজার রোগী বাড়ে তাহলে সারা শহরকে হাসপাতাল বানালেও সামাল দেওয়া সম্ভব নয়।তিনি বলেন, আমি আশা করি, জনগণ নিষেধাজ্ঞা মেনে চলবেন। প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছে, জনগণ সচেতন হচ্ছে। তবে সতর্ক না হলে মনে রাখতে হবে, পাঁচ হাজার শয্যার পর হাসপাতালগুলোতে এক ইঞ্চি জায়গা নেই আর শয্যা স্থাপনের।