বজ্রবৃষ্টির আভাস, নদীবন্দরে সতর্ক সংকেতভোটারদের দশ আঙুলের ছাপ নেবে ইসিপিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ উদ্যোগকে কীভাবে আয়কর রিটার্ন জমা দেবেনজাতিসংঘে উঠছে একাত্তরের গণহত্যার স্বীকৃতির দাবি
No icon

আগামীকাল থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

আগামীকাল বৃহস্পতিবার সারাদেশে এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে। গত ১৯ জুন এ পরীক্ষা শুরুর হওয়ার কথা ছিল। বৈশ্বিক অতিমারী কোভিড ১৯-এর কারণে পরীক্ষার বিষয়, নম্বর ও সময় কমিয়ে এনে পুনর্বিন্যাসকৃত সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এবারের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।পরীক্ষার শুরুর সময় পরিবর্তন করে সকাল ১০টার পরিবর্তে বেলা ১১টা করা হয়েছে। পরীক্ষার সময় ৩ ঘণ্টা থেকে ২ ঘণ্টা করা হয়েছে। এর মধ্যে এমসিকিউ ২০ মিনিট ও সিকিউ পরীক্ষা ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট।চলতি বছর ৯টি সাধারণ বোর্ড এবং মাদ্রাসা ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন। মোট কেন্দ্র ৩ হাজার ৭৯০টি। মোট প্রতিষ্ঠান ২৯ হাজার ৫৯১টি। বিদেশে ৮ কেন্দ্রে পরীক্ষা দেবে ৩৬৭ জন শিক্ষার্থী।গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় শিক্ষা রূপরেখা ২০২১-এর অনলাইন প্রশিক্ষণ উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, সারাদেশে সুষ্ঠুভাবে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এর ফলে কারও পক্ষেই প্রশ্ন ফাঁস করা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর রয়েছে। যদি কেউ এ বিষয়ে গুজব ছড়ায়, তার বিরুদ্ধে তৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়ার পরও পরীক্ষার সময় প্রতিবছর কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয় কেন, জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাবলিক পরীক্ষার আগে সারাদেশের কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ রাখা হয়। আমরা চাই, এ সময় অভিভাবকরা যেন তাদের সন্তানদের কোচিং সেন্টারে না পাঠান। শিক্ষার্থীরা না এলে কোচিং সেন্টার এমনিতেই বন্ধ থাকবে। এরপরও যদি কোনো কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয়, তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।মন্ত্রী বলেন, নতুন কারিকুলামে ধারাবাহিক ও সামষ্টিক মূল্যায়ন হবে। ধারাবাহিক মূল্যায়নের জন্য একটি অ্যাপ তৈরি করা হবে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বছর শেষে মূল্যায়ন করা হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষকদের বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।এর আগে জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা ২০২১ অনলাইন প্রশিক্ষণ অ্যাপের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। অনুষ্ঠানে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ সভাপতিত্ব করেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব আবু বক্কর ছিদ্দীক, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব কামাল হোসেন, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. ফরহাদুল ইসলাম প্রমুখ।