‘সরকারি কর্মচারীদের দেশপ্রেম ও জনসেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে’ভাসানচর থেকে পালানো ১৪ রোহিঙ্গা আটকঢাকার সঙ্গে একমাত্র যোগাযোগ উড়োজাহাজেবুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত ‘যুদ্ধের চেয়ে ৪ গুণ বেশি মার্কিন সেনা মারা গেছে আত্মহত্যায়’
No icon

কর আরোপ করায় বাড়বে টিউশন ফি

আগামী অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে কর আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। আর এই করের বোঝা এড়াতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো টিউশন ফি বাড়াবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সে ক্ষেত্রে করের বোঝা ঘুরেফিরে শিক্ষার্থীদের ওপরই চাপবে। এমন ভাবনা থেকে এই কর প্রস্তাবের বিরোধিতায় আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা।বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গত মঙ্গলবার রাজধানীর শাহবাগে মানববন্ধন করে আজ বৃহস্পতিবার ধানমণ্ডির শংকরে এবং শুক্রবার রামপুরায় মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন।

জানা যায়, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের খসড়া বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর ১০ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (মূসক) চালুর প্রস্তাব করা হয়েছিল। এরপরই টিউশন ফি বাড়িয়ে দেয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এই অবস্থায় মূসক প্রত্যাহারের দাবিতে রাস্তায় নামেন শিক্ষার্থীরা। তাঁদের আন্দোলনের মুখে ভ্যাট ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৭.৫ করার প্রস্তাব দিলেও আন্দোলন থামেনি। এ অবস্থায় অনেকটা বাধ্য হয়েই ভ্যাট প্রত্যাহার করে নেয় সরকার। এর আগে ২০১০ সালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ কর আরোপ করা হয়েছিল। তবে মামলার কারণে তা আদায় হয়নি।

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট সংসদে উপস্থাপন করে অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রযোজ্য সাধারণ করহার হ্রাস করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ, বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ, বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বা শুধু তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ে শিক্ষাদানে নিয়োজিত বেসরকারি কলেজ থেকে উদ্ভূত আয়ের ১৫ শতাংশ হারে কর নির্ধারণ করা হয়েছিল। মহান এই সংসদে আমি এই করহার অর্থ আইনের মাধ্যমে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করছি।