ঢাকায় ১৬ প্লাটুন আনসার মোতায়েনশিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানাল ঢাবি কর্তৃপক্ষআমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবেঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস বৃহস্পতিবার বন্ধ থাকবেআজ সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি
No icon

ভোটের দিনক্ষণ কি পেছাচ্ছে

জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক এবং একাদশ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ গতকাল রবিবার রাষ্ট্রপতি মোঃ সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নির্বাচনী তফসিলের সময় পেছানোর অনুরোধ জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুও এ দিন বলেছেন, নির্বাচনের জন্য যে পরিবেশ দরকার, সেই পরিবেশ এখনো হয়নি। সংবিধানের আলোকে একটি উপায় বের করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। এদিকে বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্যতম শরিক বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেছেন, এখনো সময় আছে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তদারকি সরকার গঠন করা হোক এবং তফসিল পুনর্নির্ধারণ করা হোক। অন্যথা এই ভোটে বামপন্থিরা অংশ নেবে না। অন্যদিকে ঘোষিত তফসিল প্রত্যাখ্যান করে রাজনীতির মাঠের প্রধান বিরোধী দল বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো রাজপথে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। অথচ সুশীল সমাজ, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়সহ বিভিন্ন মহল থেকে সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে বরাবরই তাগিদ দিয়েছে। নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীরও গতকাল বলেছেন, বিএনপি যদি নির্বাচন করতে চায় এবং আমাদের সহায়তা চায়, আমরা সহায়তা করব। এতসব কারণে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে- ভোটের তারিখে পরিবর্তন আসতেও পারে। বলা হচ্ছে, বিএনপি অংশ নিলে ভোটের দিনক্ষণ শেষপর্যন্ত পিছিয়ে যেতে পারে।

সব রাজনৈতিক দলকে ভোটে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানিয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে ঘোষিত তফসিল বর্জন করে চলছে বিএনপিসহ সমমনা দলগুলোর আন্দোলন। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, একাদশ সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টিসহ বেশ কয়েকটি দল ভোটে অংশগ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেছে।বড় দুপক্ষের পরস্পরবিরোধী এমন অবস্থানের কারণে ভোটের মাঠ এখনো প্রত্যাশিত সরগরম হয়নি। এরই মধ্যে গতকাল রাষ্ট্রপতি মোঃ সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আলোচনার উদ্যোগ ও মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় বাড়িয়ে তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ। গতকাল দুপুরে তিনি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সংবিধানের বাধ্যবাধকতা রক্ষা, নির্বাচনী তফসিলের সময় পেছানোসহ ৫টি প্রস্তাবনা তুলে ধরেন। রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি, আপনি রাষ্ট্রের অভিভাবক। সেই বিবেচনাতেও আপনি সব রাজনৈতিক দলকে আলোচনার জন্য আহ্বান জানাতে পারেন। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী আলাপ-আলোচনা শেষে বঙ্গভবন ত্যাগ করেন রওশন এরশাদ। এ সময় বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ রওশন আরা মান্নান, এরশাদপুত্র রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ এবং কাজী মো. মামুনূর রশিদ ছিলেন রওশন এরশাদের সঙ্গে।বৈঠক শেষে মসিউর রহমান রাঙ্গা জানান, রাষ্ট্রপতির কাছে রওশন এরশাদ মনোনয়নপত্র জমার সময়কাল আরও পিছিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করেছেন। ৩০ নভেম্বর আয়কর রিটার্ন ও মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। এ ক্ষেত্রে মনোনয়নপত্র জমাদানের সময়কাল দু-এক দিন পিছিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি।