ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেছেন পরিবহন শ্রমিকরামাওনা চৌরাস্তায় মহাসড়ক অবরোধ, বিপাকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরাক্যালিফোর্নিয়ার পর এবার ওকলাহোমায় গোলাগুলিতে নিহত ৩ডলারে দাম বাড়াল কেন্দ্রীয় ব্যাংকভারতের সংসদে কাশ্মীর নিয়ে স্লোগান
No icon

ভোট গণনা শেষ হওয়ার আগেই পাস মৌসুমী!

জোরদার নিরাপত্তার বাড়াবাড়ি থাকলেও বেশ শান্ত-শৃঙখল পরিবেশে শেষ হলো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। আজ ২৫ অক্টোবর, সকাল ৯টায় বিএফডিসিতে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকাল ৫টা ২৬ মিনিটে। নির্বাচন কমিশনার জানিয়েছেন, ৪৪৯ জন ভোটারের মধ্যে কাস্ট হয়েছে ৩৮৬টি ভোট। শুরু হয়েছে গণনা। এদিকে গণনা শেষ না হতেই গুজব ছড়িয়েছে সভাপতি পদে জিতে গেছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। ভোট গ্রহণ শেষ হতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবরটি ভাইরাল হয়ে যায়।

এই গুজবে বিরক্ত মৌসুমী নিজেও। তিনি বলেন, 'এ ধরনের গুজব নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করে। এখনো ভোট গণনা চলছে। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করা উচিত সবার। যেই হারুক জিতুক, আমরা সবাই শিল্পী। কাল থেকেই আবার আগের মতো মিলেমিশে কাজ করবো। প্লিজ কেউ গুজব ছড়াবেন না।'

রাত সাড়ে ৯টায় নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, এখন সদস্য পথের ভোট গণনা চলছে। সম্পাদকীয় ব্যালট বক্স খোলা হয়নি। ভোট গণনা শেষ হতে রাত প্রায় ১২টা বেজে যাবে।

উৎসবমুখর পরিবেশে আজ সকাল থেকেই বৃষ্টির বাধাকে অতিক্রম করে ভোট দিতে আসেন সিনিয়র-জুনিয়র শিল্পীরা। এফডিসিতে নির্বাচনকে ঘিরে সবরকম দুর্ঘটনা এড়াতে নিরাপত্তার জন্য সকাল থেকেই পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এবার নির্বাচনে সভাপতি পদে লড়াই করছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও খলনায়ক মিশা সওদাগর। সহ-সভাপতির দুটি পদে প্রার্থী হয়েছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল, রুবেল ও নানা শাহ। সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রতিদ্বন্দ্বী ইলিয়াস কোবরা। সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন আরমান ও সাংকো পাঞ্জা। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে অভিনেতা সুব্রতর বিপরীতে কোনো প্রার্থী নেই।

আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে লড়ছেন নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ ও চিত্রনায়ক ইমন। দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে একাই রয়েছেন জ্যাকি আলমগীর। সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে লড়বেন জাকির হোসেন ও ডন। কোষাধ্যক্ষ পদে অভিনেতা ফরহাদের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বি নেই। অর্থাৎ সুব্রত জ্যাকি আলমগীর এবং ফরহাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে কার্যকরি পরিষদ সদস্যের ১১টি পদের জন্য প্রার্থী হয়েছেন ১৪ জন। তারা হলেন- অঞ্জনা সুলতানা, রোজিনা, অরুণা বিশ্বাস, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, বাপ্পারাজ, রঞ্জিতা, আসিফ ইকবাল, আলেকজান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী, নাসরিন, মারুফ আকিব ও শামীম খান (চিকন আলী)।