ব্যাংক লেনদেনের সময় বাড়লসৌদিতে রোজা শুরু মঙ্গলবারদেশে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৭৮ জনের মৃত্যুআন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মঙ্গলবার রাত থেকে'লকডাউন' সোম-মঙ্গলবারও কার্যকর
No icon

মে মাসে নয় এখনই পরীক্ষা চান শিক্ষার্থীরা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষা পেছানোর সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীসহ সিলেট, নেত্রকোনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহের ত্রিশালে বিক্ষোভ হয়েছে। আগামী রবিবারের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে দেশব্যাপী কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।রাজধানীতে গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ২০ শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছিল। তবে তাঁদের বিকেলে ছেড়ে দেয় শাহবাগ থানার পুলিশ। শাহবাগ থানার ওসি মোহাম্মদ মামুন অর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই শিক্ষার্থীদের তাঁরা জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন।জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্সের দ্বিতীয় বর্ষের এবং ২০১৮ সালের মাস্টার্স শেষ পর্বের পরীক্ষাসহ অন্যান্য প্রফেশনাল কোর্সের পরীক্ষা চলছিল। হঠাৎ গত সোমবার এসব পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এরপর শিক্ষার্থীরা মার্চের মধ্যেই পরীক্ষাগুলো শেষ করার দাবিতে আন্দোলনে নামেন। এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্থগিত পরীক্ষা আগামী ২৪ মে থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা তাঁদের দাবিতে অনড়।

রাজধানীর শাহবাগ থেকে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ১০ শিক্ষার্থীকে আটক করে নিয়ে যায় শাহবাগ থানা পুলিশ। এ সময় শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়। পরে তাঁরা মিছিল নিয়ে শাহবাগ থানার সামনে অবস্থান নেন। দুপুর সোয়া ১টার দিকে পুলিশের ধাওয়ায় শিক্ষার্থীরা ফের ছত্রভঙ্গ হয়ে যান। এরপর তাঁরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদের উল্টো দিকের রাস্তা ও ফুটপাতে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ করেন। সেখান থেকে আরো অন্তত পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ।আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, শিক্ষার্থী হিসেবে নিজেদের যৌক্তিক দাবি নিয়ে আন্দোলন করতে এসেছেন। কিন্তু পুলিশ দাঁড়াতেই দিচ্ছে না। ছাত্রীদের গায়েও হাত তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তাঁরা।