বাণিজ্যচুক্তি বাতিল নয়, থাকবে নিষেধাজ্ঞাও: চীন প্রসঙ্গে বাইডেনভুয়া সনদে চিকিৎসক হিসেবে নিবন্ধন : ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলাপ্রথম ধাপে ভাসানচর যাচ্ছে ৬শ' রোহিঙ্গা পরিবার!ইয়েমেনে প্রতি ১০ মিনিটে মরছে একটি শিশুঢাকায় আসার সম্মতি দিয়েছেন এরদোগান
No icon

ভাসমান ব্যবসায়ীদের জন্য রিটেইল অ্যাকাউন্ট

নির্দিষ্ট দোকান বা ট্রেড লাইসেন্স নেই- এমন ভাসমান ব্যবসায়ীদের রিটেইল অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ করে দিল বাংলাদেশ ব্যাংক। ব্যাংক, এমএফএস ও ই-ওয়ালেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো এখন থেকে এসব ছোট আঙ্গিকের ব্যবসায়ীর ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট খুলে ব্যবসায়িক লেনদেনের সুযোগ দিতে পারবে।কেন্দ্রীয় ব্যাংক গতকাল সোমবার এ-সংক্রান্ত একটি নীতিমালা জারি করেছে। এতে বলা হয়েছে, শ্রমনির্ভর অতিক্ষুদ্র বা ভাসমান, প্রান্তিক পর্যায়ের বিক্রেতা এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজস্ব তৈরি পণ্য বিক্রেতা ও সেবা প্রদানকারীর নামে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে এবং সেটির মাধ্যমে ব্যবসায়িক লেনদেন করা যাবে। বিদ্যমান ব্যবস্থায় ব্যাংক বা মোবাইল ব্যাংকিংয়ে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট খুলে ব্যবসায়িক লেনদেনের সুযোগ নেই। কেননা ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট থেকে দৈনিক, মাসিক ও বার্ষিক লেনদেনের নির্দিষ্ট একটি সীমা ও সংখ্যা উল্লেখ থাকে। ব্যাংকাররা জানান, ব্যবসায়িক লেনদেনের অ্যাকাউন্ট খুলতে বিভিন্ন ধরনের কাগজপত্র জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ কারণে এ ধরনের ব্যক্তি চাইলে ব্যবসায়িক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন না। নতুন এ ব্যবস্থা ডিজিটাল পেমেন্ট পদ্ধতিতে একটি নতুন সংযোজন বলে মনে করেছেন ব্যাংকাররা।

নীতিমালায় কীভাবে লেনদেন করতে হবে সে বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ করে বলা হয়েছে, ব্যাংক ও এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে ব্যক্তির বিদ্যমান চলতি অ্যাকাউন্ট থেকেও রিটেইল ব্যাংকিং সুবিধা দেওয়া যাবে। যাদের চলতি অ্যাকাউন্ট নেই তারাও নতুন অ্যাকাউন্ট খুলে এ ধরনের লেনদেন করতে পারবেন। চলতি এ অ্যাকাউন্টের জন্য কোনো লেনদেন সীমা প্রযোজ্য হবে না। তবে ই-কেওয়াইসির মাধ্যমে খোলা অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে মাসিক ১০ লাখ টাকা লেনদেন করা যাবে। অন্যদিকে অ্যাকাউন্টে এককালীন সর্বোচ্চ স্থিতি ১০ লাখ টাকা অতিক্রম করতে পারবে না।নীতিমালায় বলা হয়েছে, দেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রমে ক্ষুদ্র ও অতিক্ষুদ্র ব্যবসায়ী এবং প্রান্তিক পণ্য বিক্রেতা ও সেবা প্রদানকারীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। তবে বিদ্যমান ব্যাংকিং কাঠামোতে ব্যবসায়িক লেনদেন করার ক্ষেত্রে তাদের জন্য ব্যাংক বা মোবাইল অ্যাকাউন্ট খোলা কষ্টসাধ্য। যদিও ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট খুলে তারা মোবাইল অ্যাকাউন্ট ও ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে দেশের অভ্যন্তরে অর্থ স্থানান্তর করতে পারেন। তবে তাদের ব্যবসায়িক লেনদেন অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে করতে পারেন না। এ ধরনের ব্যবসায়ী ও সেবা প্রদানকারীরাও যাতে তাদের লেনদেনের অর্থ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারেন, সেজন্য এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।