করোনা আতঙ্কে বাংলাদেশ ছেড়েছেন ৯ শতাধিক বিদেশিদেশের স্বার্থে কঠোর আইনের প্রয়োগ, অডিওবার্তায় পুলিশকরোনা মোকাবেলায় সর্বদলীয় বৈঠকে বসছেন নরেন্দ্র মোদিকরোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে যমুনা গ্রুপের ১০ কোটি টাকা হস্তান্তরপ্রণোদনার আওতায় থাকবেন দেশের সবাই: অর্থমন্ত্রী
No icon

করোনাভাইরাসের পরবর্তী আঁতুড়ঘর হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

মহামারী করোনাভাইরাসের পরবর্তী বৈশ্বিক উৎসভূমি হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এমন দাবি করেছে। খবর রয়টার্সের। জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণ ব্যাপকহারে বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে ৮৫ শতাংশ ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রের। এর মধ্যে ৪০ শতাংশই যুক্তরাষ্ট্রের। যুক্তরাষ্ট্র প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাসের নতুন কেন্দ্রভূমি হতে যাচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে আমরা ব্যাপক সংক্রমণ দেখতে পাচ্ছি, এটি দিন দিন বাড়ছে। কাজেই দেশটিতে সেই আশঙ্কা রয়েছে। কেন্দ্রীয়ভাবে সমন্বিত পদক্ষেপের অভাবের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি অঙ্গরাজ্য ও স্থানীয় কর্মকর্তারা প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তারা বলছেন, করোনা মোকাবেলায় জনপদগুলোকে নিজেদের মতো করে কাজ করতে হচ্ছে। এতে করোনাসামগ্রী ও চিকিৎসা নিয়ে এক ধরনের প্রতিযোগিতায় ঢেলে দেয়া হচ্ছে অঙ্গরাজ্যগুলোকে।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও সেই জটিলতার কথা স্বীকার করেছেন। টুইটারে তিনি বলেছেন, ফেস মাস্ক ও ভেন্টিলেটরের বৈশ্বিক বাজার উন্মত্ত হয়ে পড়েছে। কিন্তু উপকরণ পেতে আমরা রাজ্যগুলোকে সহায়তা করছি। কিন্তু তা সহজ নয়।

এদিকে বিশ্বের দ্বিতীয় জনসংখ্যাবহুল দেশ ভারতে দেশজুড়ে ২৪ ঘণ্টা অচলাবস্থার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

ভাইরাসের বিস্তার দমিয়ে রাখতে ব্রিটেন ও অন্যান্য দেশের মতোই কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত। আর মার্চে জাপান থেকে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক তৎপরতা ভেঙে পড়েছে।