বর্জ্য অপসারণে কতটা প্রস্তুত ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন?ঈদের খুশি নেই, ছেলের কবরের পাশে বসে কাঁদছেন রিফাতের মানিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় প্রস্তুত শোলাকিয়াকোরবানির পশু জবাই ও মাংস প্রস্তুতে ২৫% খরচ বহন করবে ডিএনসিসিঈদের সকালে সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী
No icon

বাংলাদেশে প্রসবকালীন মাতৃ মৃত্যুর হার রোধে করনীয়

সাম্প্রতিক সময়ে চিকিৎসার ব্যাপক অগ্রগতি এবং স্বাস্থ্যসেবা সুবিধার উন্নতি সত্ত্বেও বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যু হার এখনও একটি বড় চ্যালেঞ্জ। মাতৃমৃত্যুর প্রধান কারণগুলো হলো প্রসব পরবর্তী রক্তক্ষরণ (৩১%),খিচুঁনি (২০% ), বিলম্বিত ও বাধাগ্রস্ত প্রসব (৭% ), র্গভপাত (১% ), অন্যান্য প্রত্যক্ষ (৫% ) এবং পরোক্ষ কারণ (৩৫% )। পোস্টর্পাটাম হেমোরেজ(পিপিএইচ) বা প্রসব পরর্বতী রক্তক্ষরণ প্রতিরোধের জন্য ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (ডাব্লিউএইচও) ইউটেরোটোনিকস (অক্সিটোসিন এবং কার্বেটোসিন) ব্যবহারের সুপারিশ করে। কিন্তু সর্বোওম কার্যকারিতা বজায় রাখার অক্সিটোসিন এবং কার্বেটোসিনকে নিয়ন্ত্রিত তাপমাত্রায় ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সংরক্ষন ও পরিবহন করতে হয়। কিন্তু বাস্তবে বাংলাদেশের অনেক প্রত্যন্ত অঞ্চলে সঠিক প্রক্রিয়ায় এই জীবনরক্ষাকারী ওষুধ দুটিকে সংরক্ষন করা সম্ভব হয়না।


সম্প্রতি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিনে প্রকাশিত এক গবেষনায় দেখা গেছে প্রসব পরর্বতী রক্তক্ষরণ বা পিপিএইচ প্রতিরোধে তাপমাত্রা সহনশীল কার্বেটোসিন, অক্সিটোসিন এর মতই নিরাপদ এবং র্কাযকরী হতে পারে। এমএসডি ও ফেরিং ফারমাসিউটিক্যালস এর সহযোগীতায় বিশ্বের ১০টি দেশে ৩০০০০ মায়ের উপর এই গবেষণাটি চালায় ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (ডাব্লিউএইচও)। কার্বেটোসিনের এই নতুন ফরমুলেশনটি নিয়ন্ত্রিত তাপমাত্রায় রেফ্রিজারেটরে রাখার প্রয়োজন হয়না এবং ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করলেও এটির গুনাগুন দুই বছর পর্যন্ত অক্ষুণ্ণ থাকে। বাংলাদেশে পরবর্তী রক্তক্ষরণজনিত মাতৃমৃত্যু কমাতে কার্বেটোসিনের এই ফরমুলেশনটির প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করে নুভিস্তা ফার্মা লিমিটেড এদেশে সর্বপ্রথম নিয়ে এসেছে হিট স্ট্যবল কার্বেশট (তাপমাত্রা সহনশীল কার্বেটোসিন)। নতুন এই তাপমাত্রা সহনশীল ফরমুলেশনটি বাচ্চা জন্মের পর অতিরিক্ত কার্যকর যা এদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে হাজার হাজার মায়ের জীবন রক্ষা করতে পারে। - প্রেস রিলিজ।