আমার দলেই কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করে: মমতাভাস্কর্য নিয়ে আমরা সরাসরি কোনো সংঘাতে যাব নাতেল চড়ছেই, অস্থির স্বর্ণইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে যে শর্ত সৌদিরসেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে: বিজিবিকে প্রধানমন্ত্রী
No icon

এবার মৃতের সংখ্যায় চীনকে ছাড়াল বাংলাদেশ

করোনা শনাক্তে চীনকে ছাড়ানোর পর এবার এবার মৃতের সংখ্যায়ও ছাড়িয়ে গেল বাংলাদেশ।গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৬ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে করোনাভাইরাসে দেশে ৪ হাজার ৭৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।গত বছর ডিসেম্বরে যেখান থেকে এ ভাইরাস পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে, সেই চীনে এ পর্যন্ত ৪ হাজার ৭৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সর্বশেষ এই তথ্য হালনাগাদ করলে জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের টালিতে বিশ্বে বাংলাদেশ উঠে আসবে ২৮ তম স্থানে।সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ২১৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ৮১২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট শনাক্ত ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩২।এই সময়ে দেশে আরও ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ৪ হাজার ৭৫৯ জন কোভিড রোগীর মৃত্যু হলো।এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫১২ জন এবং মোট সুস্থ ২ লাখ ৪৩ হাজার ১৫৫ জন।বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সারা দেশে গত এক দিনে ৯৪টি ল্যাবে ১৪ হাজার ২১৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ১৭ লাখ ৪২ হাজার ৬৯৬টি নমুনা।২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৭৫ শতাংশ, এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭১ দশমিক ৬৬ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪০ শতাংশ।চীনে প্রাদুর্ভাবের তিন মাস পর বাংলাদেশে নতুন করোনাভাইরাসের প্রথম রোগী ধরা পড়েছিল ৮ মার্চ, তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর খবর আসে।গত ১৩ জুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাতেও চীনকে ছাড়িয়ে যায় বাংলাদেশ। ২৬ আগস্ট দেশে শনাক্ত রোগী তিন লাখ পেরিয়ে যায়। এর মধ্যে ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।