দেশে এক দিনে চল্লিশের বেশি মৃত্যুদেশে করোনার ভারতীয় ধরন শনাক্তবিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন আজ শপিং মলে ভিড়, বালাই নেই স্বাস্থ্যবিধিরআজ থেকে ফেরিতে যাত্রী পারাপার বন্ধ
No icon

৩৭ দিন পর কথা বললেন নায়ক ফারুক

ঢাকাই সিনেমার বরেণ্য অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ৩৭ দিন পর কথা বলতে পারছেন। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের আইসিইউ থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে তাকে। বুধবার সন্ধ্যায় নায়ক ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠান সিঙ্গাপুর থেকে সমকালকে জানিয়েছেন এ তথ্য। একই তথ্য জানিয়েছেন ফারুকের ছেলে রওশন হোসেন পাঠান শরৎও। ফারহানা পাঠান বলেন, প্রায় দেড়মাস হয় ফারুককে শুধু দেখে যাচ্ছি। কথা বলতে পারছি না। কতটা মানসিক যন্ত্রণায় ছিলাম সেটা বলে বুঝাতে পারব না। একটা মানুষ আমার সামনে আছে অথচ কথা বলতে পারছে না। সেই ফারুক কাল থেকে কথা বলছে। কতটা আনন্দ লাগছে সেটাও বলে বুঝাতে পারব না।

তিনি আরও জানান, গতকাল আপনাদের মিয়া ভাইকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। দেশবাসীর দোয়ায় আপনাদের মিয়া ভাই দ্রুত সেরে উঠছে। সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমত। চিকিৎসকদেরও আন্তরিকতার কোনো শেষ ছিল না। সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা নেই আমার।

গত ৪ মার্চ থেকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফারুক রক্তে সমস্যা, পাকস্থলীতে রক্তক্ষরণ ও করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ২১ মার্চ থেকে অচেতন অবস্থায় আইসিইউতে ছিলেন।

এর আগে ১৫ মার্চ খিচুনি হওয়ার পর ফারুকের মস্তিষ্কে একটি সিজার করা হয়েছিল। এরপর তার নড়াচড়া এবং কথা বলা সীমিত হয়ে পড়েছিল। এরপর আইসিইউতে পাঠানো হয়।

১৯৭১ সালে জলছবি চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে রূপালী পর্দায় অভিষেক হয় ফারুকের। এরপর একে একে আলোর মিছিল, সুজন সখী, লাঠিয়াল, নয়নমনি, মিয়া ভাই, সারেং বৌয়ের মত কালজয়ী সব চলচ্চিত্রে অভিনয় করে বাংলা চলচ্চিত্রের উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে আজও দর্শকের হৃদয়ে আছেন চিত্রনায়ক ফারুক।