নুরের নতুন রাজনৈতিক দল ' বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ'বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা নারীবিতর্কিত ব্যক্তির নামের প্রতিষ্ঠান এমপিও নয়ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশসৌদি আরবে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধে শিথিলতা
No icon

স্বর্ণের বার ডাকাতির ঘটনায় ৬ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ফেনীতে স্বর্ণের বার ডাকাতির ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলামসহ ছয় পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার (এসপি) খোন্দকার নূরুন্নবী। তিনি বলেন, কোনো পুলিশ সদস্য যদি চাকরিতে থাকা অবস্থায় কোনো ফৌজদারি মামলার আসামি হন এবং আটক হন তাহলে চাকরিবিধি অনুযায়ী সাময়িক বরখাস্ত হওয়ার কথা। পুলিশ সুপার আরও বলেন, সাময়িক বরখাস্ত সংক্রান্ত চিঠিতে স্বাক্ষর হয়ে গেছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার চিঠি ইস্যু করা হবে। বুধবার দুপুরে ফেনী মডেল থানা থেকে ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ খানের আদালতে ওই ছয় আসামিকে হাজির করে পুলিশ। প্রত্যেকের ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মনির হোসেন। আদালত প্রধান আসামি ডিবির ওসি সাইফুল ইসলামকে ৪ দিন ও বাকি ৫ পুলিশ কর্মকর্তাকে ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

চট্টগ্রামের স্বর্ণ ব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাস চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর ফতেহপুরে তার গাড়ি থামিয়ে ২০টি স্বর্ণের বার ডাকাতি করেন ডিবি পুলিশের এই কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় গোপাল কান্দি বাদী হয়ে ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবীর কাছে অভিযোগ করলে তিনি তদন্ত করে সত্যতা পান।

পরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি সাইফুল ইসলাম ভুঞা, তিন এসআই, দুই এএসআইকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারদের কাছ থেকে ১৫টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার ও বর্কাস্ততরা হলেন ফেনী জেলা গোয়েন্দা শাখার পুলিশ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া, এসআই মো. মোতাহার হোসেন, মো. মিজানুর রহমান, নুরুল হক এবং এএসআই অভিজিত বড়ুয়া ও এএসআই মাসুদ রানা।