নুরের নতুন রাজনৈতিক দল ' বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ'বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা নারীবিতর্কিত ব্যক্তির নামের প্রতিষ্ঠান এমপিও নয়ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশসৌদি আরবে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধে শিথিলতা
No icon

প্রকাশ্যে সাহিনুদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যার মামলা আসামি মনিরকে গ্রেপ্তার

রাজধানীর মিরপুরের পল্লবীতে ছেলের সামনে বাবা সাহিনুদ্দিনকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলার আসামি মনিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার (২২ মে) পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান এম এ আউয়ালকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এদিকে ওই হত্যার ঘটনায় করা মামলার আসামি মানিক র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। মানিক মামলার ৫ নম্বর আসামি। র‌্যাব জানান, গত রোববার (১৬ মে) বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর মিরপুরের পল্লবীর ডি-ব্লকের ৩১ নম্বর সড়কে ছেলের সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় সাহিনুদ্দিনকে (৩৩)। তার বাসা ওই এলাকার বুড়িরটেকে। হত্যাকারীরা জমিসংক্রান্ত বিরোধ মেটানোর কথা বলে সাহিনুদ্দিনকে ঘটনাস্থলে ডেকে আনে। এরপর রামদা, চাপাতিসহ বিভিন্ন দেশি অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহতের মা মোসাম্মৎ আকলিমা পল্লবী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এতে সাবেক সাংসদ এম এ আউয়ালকে ১ নম্বর আসামি করে ২০ জনের নামে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১৪-১৫ জনকে আসামি করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মাত্র ৫ থেকে ৭ মিনিটের মধ্যে ছেলের সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বাবা সাহিনুদ্দিনকে। জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘটিত এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান এম এ আউয়াল। আর এই রোমহর্ষ হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেন ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা সুমন ব্যাপারীসহ ১০-১২ জন।