বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি শুরু আজরাজধানীতে বৃষ্টির সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ৩ জনের মৃত্যুনিম্নচাপ হয়ে ঘূর্ণিঝড় রিমাল এখন কোথায়?ঘূর্ণিঝড় রিমালে মৃত্যুবরণ করেছে ১৪ জনদুপুরের মধ্যে ঢাকাসহ ২০ অঞ্চলে ৮০ কিমি বেগে ঝড়ের আভাস
No icon

হকি লিগ খেলতে জার্মান যাচ্ছেন বাংলাদেশের তিন তারকা

জার্মান হকি লিগ খেলতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের তিন তারকা। আজ ভোরে জার্মানির উদ্দেশে দেশ ছাড়ার কথা রয়েছে জাতীয় হকি দলের দুই তারকা খেলোয়াড় রোমান সরকার ও মাহবুব হোসেনের। এর মধ্যে গত সোমবার ছিল মাহবুবের জন্মদিন। জন্মদিন পালন করেই জার্মানি যাওয়ার প্রস্তুতিতে নেমে পড়তে হয় তাঁকে। বৃহস্পতিবার যাবেন ইমরান হোসেন পিন্টু। বাংলাদেশের হকি খেলোয়াড়দের জন্য জার্মানিতে লিগ খেলতে যাওয়াটা অবশ্য নতুন কিছু নয়। গত এক যুগ ধরেই ইউরোপের দেশটিতে লিগ খেলতে যান বাংলাদেশিরা।

মিডফিল্ডার রোমান সরকার ও ফরোয়ার্ড মাহবুব হোসেন এই প্রথম দেশের বাইরে লিগ খেলতে যাচ্ছেন। বুন্দেসলিগা হকি লিগে এভি বুবলিনজেন হকি ক্লাবের হয়ে খেলবেন তারা। লিগ শেষে জুলাই মাসে দেশে ফিরবেন। অ্যাজাক্স ডিফেন্ডার পিন্টু এইচটিসি বনের হয়ে খেলবেন। তিনি জুনেই ফিরবেন। 

প্রথমবার জার্মান লিগে খেলতে যাওয়া প্রসঙ্গে জাতীয় দলের নিয়মিত মুখ রোমান বলেন, ‘জার্মানিতে আমাদের সিনিয়রদের অনেকে খেলেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় এবার আমি এবং আমার দুই জুনিয়র (মাহবুব হোসেন ও সোহানুর রহমান সবুজ) খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছি। আগামীকাল ভোরে আমি ও মাহবুব জার্মানির উদ্দেশে রওনা করব। সবুজ এখন বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হয়ে প্রীতি ম্যাচ খেলতে ভারতে অবস্থান করছেন। দেশে ফেরার পর হয়তো তিনি যেতে পারেন।’

সদ্য সমাপ্ত হকি লিগে আবাহনীর হয়ে খেলেছেন ২০১৩ সাল থেকে জাতীয় দলের নিয়মিত মুখ রোমান। মাহবুব খেলেছেন ঊষা ক্রীড়া চক্রের হয়ে। এবার লিগের মাঝপথে নাকি জার্মানি থেকে আমন্ত্রণ পান তারা। বুবলিনজেন হকি ক্লাবের কোচ টমাস থাউনারের কাছ থেকে এ আমন্ত্রণপত্র আসে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন বরাবর। জার্মানি লিগে ভালো কিছু করার ব্যাপারে বেশ প্রত্যয়ী রোমান।

জার্মানিতে বাংলাদেশের হকি খেলোয়াড়রা সাধারণত নিচু স্তরের লিগে অংশগ্রহণ করেন। তবে একাধিকবার জার্মানিতে খেলা ইমরান হোসেন পিন্টু বাংলাদেশের অন্যদের চেয়ে এক স্তর ওপরে খেলেন। এবার তিনি বুন্দেসলিগার তৃতীয় স্তরে খেলবেন। 

বেশ কয়েকবার জার্মান লিগে খেলা পিন্টুর মূল্যায়ন, ‘আমাদের এখানে হকি অনিয়মিত। জার্মান লিগে খেলার মাধ্যমে আমাদের যেমন আয় হয়, দেশের সম্মানও বাড়ে। আমাদের দেশের হকি খেলোয়াড়দের এই সুযোগ করে দিয়েছেন জামিল ভাই ও কোচ গেরহার্ড।’ প্রায় এক দশক আগে হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন খন্দকার জামিল উদ্দিল। তিনি জাতীয় দলের কোচ হিসেবে জার্মানির গেরহার্ড পিটারকে নিয়োগ দিয়েছিলেন। সেই গেরহার্ডই বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের উন্নয়নের জন্য জার্মানির লিগে খেলার ব্যবস্থা করে দেন, যা এখনও চলছে।