দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াও তৈরি থাকুক: হুবিশ্ববাজারে টানা ৬ সপ্তাহ কমলো জ্বালানি তেলের দামওমিক্রন নিয়ন্ত্রণে ২৩ সুপারিশরাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭৫প্রতিবেশীর ঘরে অস্ত্র ঢোকালে যুদ্ধ বাধবে: যুক্তরাষ্ট্রকে রাশিয়া
No icon

খালেদা জিয়াকে বিদেশে সুচিকিৎসা ব্যবস্থা করার জন্য আহ্বান বিএনপির এমপিদের

রাষ্ট্রপতিকে তার নিজস্ব ক্ষমতাবলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্যরা। রোববার জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় এক মানববন্ধনে তারা এ আহ্বান জানান।বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ বলেন, আমরা আজকে একটি অবৈধ সরকারের কাছে আবেদন করছি। কারণ কোনো উপায় তো নেই। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। যেখানে চিকিৎসক পরিবার এবং দলের আবেদনকে উপেক্ষা করছে সরকার। সরকার তাদের নিজের মতো চলছে। আইনমন্ত্রী পাগলের প্রলাপ বকছেন। ৪০১ ধারা নিয়ে তিনি পজিটিভ নেগেটিভ বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, জেলখানায় ঢুকে বেগম জিয়াকে আবার আবেদন করতে হবে।খালেদা জিয়ার বাড়িকে সাবজেল ঘোষণা করে তাকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বেগম জিয়া যেখানে আছেন সেখানেই সাবজেল ঘোষণা করা হোক। সেখান থেকেই তাকে মুক্তি দিয়ে বিদেশ নেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক। আইনমন্ত্রী বলেছেন, বিদেশ থেকে ডাক্তার আনার অনুমতি তিনি দিতে পারেন। পৃথিবীতে চিকিৎসা ব্যবস্থা তো সহজ হয়ে গেছে। আমাদের ডাক্তাররা যা বলছে ইংল্যান্ডের ডাক্তাররাও তাই বলছে। সমস্যা তো হলো চিকিৎসা। দরকার লজিস্টিকস, মেডিকেল ইকুইপমেন্ট। ম্যাডামের যে অবস্থা এদেশে ট্রিটমেন্ট নেই। তার যে সার্জারি লাগবে সেই সার্জারির ইকুইপমেন্ট কোথায়? আইনমন্ত্রীকে বলতে চাই- এর মধ্যে একটা কাজ করেন আপনি জাহাজে করে একটি হাসপাতাল এ দেশে নিয়ে আসুন।

এই সংসদ সদস্য বলেন, কিছুদিন আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তার বক্তব্য শুনে আমি ব্যক্তিগতভাবে আশা করি না নেত্রী বেগম জিয়াকে তিনি মুক্তি দিয়ে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন। মাননীয় রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করতে চাই- আপনি আপনার নিজস্ব ক্ষমতাবলে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। কারণ আপনাকে সেই সাংবিধানিক ক্ষমতা দেওয়া আছে।চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ বলেন, বাংলাদেশ এমন একটি জায়গায় উপনীত হয়েছে যেখানে মানুষের মৌলিক অধিকার, আইনের শাসন, একেবারে অনুপস্থিত। প্রধানমন্ত্রী সাম্প্রতিক এক সংবাদ সম্মেলনে বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে যে কথা বলেছেন এর জন্য আজকে সত্যিকার অর্থেই আমার নিন্দা জানানোর ভাষা নেই, প্রতিবাদ করার ভাষা নাই। একথা কি সুষ্ঠুভাবে প্রমাণ করে না প্রধানমন্ত্রীর উপরে নির্ভর করছে দেশের বাইরে বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সুযোগ পাওয়া না পাওয়া।তিনি বলেন, আইনমন্ত্রী সিনিয়র একজন ল ইয়ার। তিনি আইনের যে ব্যাখ্যা দেন সেটা এদেশের সাধারণ মানুষ প্রত্যাশা করে না। হঠাৎ করে তিনি বলছেন, বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার সুযোগ দেবেন। আমরা তো বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার দাবি জানাইনি।