ট্রাম্পের জয় চেয়েছিলাম : পুতিনষড়যন্ত্র চলছে চোখ-কান খোলা রাখবেন: নাসিম‘আমার মেয়েকে রাত ১টায় নিজের রুমে ডেকে নেয় চিকিৎসক’খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়ে আদেশ ২৯ আগস্টগণতন্ত্র না থাকলে বিএনপি সমালোচনা করতে পারত না: কাদের
No icon

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুরস্কার নিতে সিডনিতে পৌঁছেছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে পৌঁছেছেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের আমন্ত্রণে গ্লোবাল সামিট অন উইমেন সম্মেলনে তিনি যোগ দেবেন। সম্মেলনে তিনি মর্যাদাপূর্ণ গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০১৮ -তে ভূষিত হবেন। টার্নবুলের সঙ্গে তাঁর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে। সকালে থাই এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজে করে অস্ট্রেলিয়ার সিডনির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী।সিডনি বিমানবন্দরে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ সুফিউর রহমান প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।সফরের প্রথম দিন সকালে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। ভিয়েতনামের ভাইস প্রেসিডেন্ট দাং থি নাও থিনয়ের সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ হবে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সিডনির ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে প্রধানমন্ত্রীর হাতে গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হবে।

নারীর ক্ষমতায়ন এবং জাতীয় উন্নয়নে নারীদের মূলধারায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে সেখানে বক্তব্য দেবেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) একটি সূত্র বলেছে, সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন ও জাতীয় উন্নয়নের মূলধারায় নারীদের সম্পৃক্তকরণে তাঁর সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরবেন। প্রধানমন্ত্রী ২৮ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সঙ্গে বৈঠক করবেন। শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল সিডনিতে অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। শেখ হাসিনা ওয়েস্টার্ন সিডনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন করবেন এবং ২৮ এপ্রিল হোটেল সোফিটেলে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। ৩০ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে প্রতিনিধিদলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, নারী ও শিশুকল্যাণমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক ছিলেন।