বাংলাদেশকে বন্ধুরাষ্ট্র বললেও নিরীহ মানুষ হত্যা করছে ভারত: কিরিটি রায়ভাষানচরে স্থানান্তর রোহিঙ্গাদের ইচ্ছায় হতে হবে : ইউএনএইচসিআরঅতিরিক্ত যাত্রী ওঠায় ছিঁড়ে পড়ে লিফটটিব্রিটেনে একরাতে পাঁচ মসজিদে হামলা, ভাঙচুরআমরা আমাদের শিক্ষাকে ‘ব্র্যান্ডিং’ করতে চাই : দীপু মনি
No icon

শীতে হাঁপানি নিয়ন্ত্রণে করণীয়

যাদের হাঁপানির সমস্যা আছে শীতকালে তাদের ভোগান্তি আরও বেড়ে যায়। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, শুধু শীতকালেই নয়, আবহাওয়ার পরিবর্তনের ফলে বছরের যে কোনও সময়েই হাঁপানির সমস্যা বাড়তে পারে। হাঁপানির অন্যতম কারণ হল অ্যালার্জি। ধূলা, ধোঁয়া, পশু-পাখির লোম, তুলার আঁশ, রান্নাঘর বা বিছানার ধূলা, বাতাসে ভেসে বেড়ানো ফুলের রেণু ইত্যাদি শ্বাসনালীতে সমস্যা সৃষ্টি করে। এগুলি হাঁপানির ঝুঁকি বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। এছাড়া কিছু কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, ধূমপান হাঁপানির সমস্যা বাড়াতে ভূমিকা রাখে। পরিবারে কারও হাঁপানির সমস্যা থাকলে এই অসুখের ঝুঁকি অনেকটা বেড়ে যায়। অতিরিক্ত মানসিক চাপ এবং অবসাদ থেকেও হাঁপানি হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, হাঁপানি হল ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপের মতো। এটি সম্পূর্ণ নিরাময় সম্ভব নয। তবে ওষুধের পাশাপাশি কিছু নিয়ম মেনে চললে এটা নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। যেমন-

১. ঘর-বাড়ি পরিষ্কার রাখুন

২. বাড়িতে পোষা প্রাণি থাকলে অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বন জরুরি। পোষা প্রাণির কাছে গেলে নাকে-মুখে কাপড় বাঁধুন। প্রয়োজনে মাস্ক ব্যবহার করুন।

৩. ঘরে আলো-বাতাস ঢোকার ব্যবস্থা রাখুন।

৪. নিয়মিত বালিশ, কম্বল রোদে দিন।

৫. পরিষ্কার জামা-কাপড় ব্যবহার করুন।কয়েকদিন পর পর বিছানার চাদর পরিবর্তন করুন।

৬. ঠাণ্ডায় বাইরে বের হলে গরম কাপড় ব্যবহার করুন। মুখের অর্ধেকটা ঢাকা থাকে এমন মাস্ক কিংবা স্কার্ফ দিয়ে মুখ ঢেকে বের হোন।

৭. সকালে হাঁটতে বের না হয়ে বাড়িতেই ব্যায়াম করুন।

৮. বাইরে থেকে ফিরে ভালভাবে হাত-পা পরিষ্কার করুন। সূত্র : জি নিউজ