শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত ৬ মন্ত্রণালয়ের বৈঠক সন্ধ্যায়পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ কালউৎকণ্ঠায় শিক্ষার্থীরা এখন ধৈর্যহারাস্কুল-কলেজ খোলার পরিবেশ পর্যালোচনা সভা শনিবারউন্নয়নশীল দেশের কাতারে বাংলাদেশ
No icon

১৩০ দেশ এক ডোজ টিকাও পায়নি

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে আপাতত স্বস্তি নিয়ে এসেছে বেশ কিছু কোম্পানির উদ্ভাবিত টিকা। কিন্তু মোট উৎপাদিত টিকার বণ্টনে বিশ্বে এমনই বৈষম্য শুরু হয়েছে যে, তা নিয়ে একাধিকবার জাতিসংঘসহ অন্যান্য বিশ্ব সংস্থা উদ্বেগ প্রকাশেও কাজ হয়নি। এই বৈষম্য কতটা মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছেছে, তা অনুধাবন করা যায় গত বুধবার নিরাপত্তা পরিষদে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের কথায়। তিনি জানিয়েছেন, বিশ্বে এখন পর্যন্ত যে টিকা উৎপাদিত হয়েছে তার ৭৫ শতাংশই ব্যবহার করছে ১০টি দেশ। এখন পর্যন্ত ১৩০টি দেশ এক ডোজও টিকা পায়নি, যা মারাত্মক অন্যায্য ও অন্যায়।গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে টিকার সমতা বজায় রাখা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় নৈতিক পরীক্ষা উল্লেখ করে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, অনেক দরিদ্র দেশের জন্য টিকা নিশ্চিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গঠন করা কোভ্যাক্স কর্মসূচি ইতোমধ্যে প্রাথমিক লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। অথচ একই সময়ে ধনী দেশগুলো টিকাদান শুরু করতে পেরেছে। আবার বেশ কয়েকটি উন্নয়নশীল দেশ কোভ্যাক্সের টিকার অপেক্ষা না করে তা কিনতে প্রাইভেট চুক্তি স্বাক্ষরের চেষ্টা করছে।

এমন পরিস্থিতিতে টিকার ন্যায্য বণ্টন নিশ্চিতে বিজ্ঞানী, উৎপাদক এবং অর্থায়নকারীদের নিয়ে জরুরি ভিত্তিতে পরিকল্পনা তৈরির আহ্বান জানান জাতিসংঘ মহাসচিব। তিনি সম্ভাব্য দ্রুত সময়ের মধ্যে দুনিয়ার সব মানুষের জন্য টিকা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান। একই সঙ্গে তিনি শীর্ষস্থানীয় অর্থনৈতিক শক্তিগুলোর জোট গ্রুপ-২০কে জরুরি টাস্কফোর্স গঠনেরও অনুরোধ জানিয়েছেন। কারণ গ্রুপ ২০-এর মতো শক্তিগুলোর ওষুধ তৈরি প্রতিষ্ঠানসহ এ সংশ্লিষ্ট সব শিল্পকে ঐক্যবদ্ধ করার সক্ষমতা রয়েছে বলে বিশ্বাস আন্তোনিও গুতেরেসের।