সিম বিক্রি করতে পারবে না গ্রামীণফোনআগামী জাতীয় নির্বাচন ইভিএমে না ব্যালটেআগেভাগেই পশুর হাট, ভোগান্তিতে স্থানীয়রাবুস্টার ডোজে গতি নেই সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখীআইএমএফ থেকে ঋণ নেওয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার
No icon

জয়ের জন্য উইন্ডিজের দরকার ৩৫ রান, বাংলাদেশের ৭ উইকেট

সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহানের দৃঢ় ব্যাটিংয়ের পর খালেদ আহমেদের দারুণ বোলিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অ্যান্টিগা টেস্ট জমিয়ে তুলেছে বাংলাদেশ। যদিও ম্যাচের তৃতীয় দিন শেষে জয়ের জন্য ক্যারিবীয়দের দরকার ৩৫ রান। আর বাংলাদেশের জিততে ৭ উইকেট প্রয়োজন।স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে শনিবার উইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটির তৃতীয় দিন মাঠে নামে বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করা দলটি নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায়।দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করা সফরকারীরা দিনের শুরুতে হারায় নাজমুল হোসেন শান্তকে। কাইল মেয়ার্সের বলে ব্যক্তিগত ১৭ রানে জন ক্যাম্পবেলকে ক্যাচ দেন এই বাঁহাতি। তিনি ৪৫ বলে ৩টি চার হাঁকিয়েছেন।এবারও ব্যর্থ সাবেক অধিনায়ক মুমিনুল হক। প্রথম ইনিংসে শূন্যের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ রানে ফিরলেন তিনি। কাইল মেয়ার্সের বলে এলবি হন তিনি। দলীয় শতকের পর ফিরেছেন লিটন দাস। কেমার রোচের বলে খোঁচা দিয়ে স্লিপে মেয়ার্সকে ক্যাচ দেন তিনি। ১৫ বলে ১৭ করেছেন লিটন।

লড়াই করতে থাকা ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় কেমার রোচের শিকার হন। দলীয় ১০৯ রানের মাথায় উইকেটরক্ষক জসুয়া ডি সিলভাকে ৪২ রানে ক্যাচ দেন। এই ডানহাতি ১৫৩ বলে ৩টি চারে নিজের ইনিংস সাজান।অবশেষে সপ্তম উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের ইনিংসে হাল ধরেন সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহান। এই জুটি টাইগারদের লিড পাইয়ে দেওয়ার পর ২২১ বলে ১২৩ রানের দারুণ পার্টনারশিপ গড়েন। তবে ৬ রানের ব্যবধানে দুজনকেই কেমার রোচ তুলে নিলে ম্যাচে ফেরে উইন্ডিজ। বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব ৯৯ বলে ৬টি চারে ৬৩ করে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ক্যাচ দেন। অন্যদিকে ১৪৭ বলে ১১টি চারে ৬৪ করে উইকেটরক্ষক জসুয়া ডি সিলভাকে ক্যাচ দেন।শেষদিকে এবাদত হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান দ্রুতই বিদায় নেন। বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৫ রানে অলআউট হয়। যেখানে প্রতিপক্ষকে কেবল ৮৪ রানের লক্ষ্য দেয়।

ক্যারিবীয় বোলারদের মধ্যে দশমবারের মতো টেস্ট ক্যারিয়ারের ৫ উইকেট দখল করেন। এছাড়া আলজারি জোসেফ ৩টি ও মেয়ার্স ২টি উইকেট পান।ছোট লক্ষ্য দিলেও বাংলাদেশ পেসার খালেদ আহমেদ স্বাগতিকদের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই ম্যাচ জমিয়ে তোলেন। উইন্ডিজের দলীয় ৯ রানেই এই ডানহাতি ৩ উইকেট দখল করেন। তিনি একে একে টপঅর্ডারের তিন ব্যাটার ব্র্যাথওয়েট, রেমন রেইফার ও এনক্রুমাহ বোনারকে বিদায় করেন। ব্র্যাথওয়েট ও রেইফার উইকেটরক্ষক সোহানকে ক্যাচ দেন। বোল্ড হন বোনার। তবে দিনের বাকিটা সময় দেখেশুনে খেলে পার করে দেন জন ক্যাম্পবেল ও জার্মেই ব্ল্যাকউড। ৩ উইকেট হারিয়ে ৪৯ রান করে উইন্ডিজ। ক্যম্পবেল ৪২ বলে ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন। অন্যদিকে ব্ল্যাকউড ১৭ রানে মাঠ ছাড়েন।এর আগে ৫০ রানে ২ উইকেট হারানো বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে ফের ব্যাটিংয়ে নামে। দ্বিতীয় দিন জয় ১৮ ও শান্ত ৮ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছিল। বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১০৩ রানে অলআউট হওয়ার পর ক্যারিবীয়দের ২৬৫ রানে প্রথম ইনিংসে থামে।