সিরিয়ায় অভিযানে নামছে তুর্কি সেনারাআওয়ামী লীগই দেশের সব অর্জন নষ্ট করেছে: ফখরুল'অপপ্রচার' ঠেকাতে ইন্টারনেটের গতি কমানোর প্রস্তাব পুলিশেরভোটের মাঠে সেনাবাহিনী নামবে ২৪ ডিসেম্বররব ও মান্নাকে ছাত্রলীগ-যুবলীগের ধাওয়া
No icon

অরিত্রির আত্মহত্যা: ৯ জানুয়ারি তদন্ত রিপোর্ট

শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীর মৃত্যুতে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ৯ জানুয়ারি দাখিলের দিন ধার্য করেছেন আদালত। পল্টন থানায় অরিত্রির বাবা দিলীপ অধিকারীর করা এজাহার আমলে নিয়ে ঢাকার মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী এ দিন ধার্য করেন। আদালত সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। মামলায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান শিক্ষক জিন্নাত আরা এবং শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে আসামি করা হয়েছে। অরিত্রির বিরুদ্ধে স্কুল কর্তৃপক্ষ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নকলের অভিযোগ এনেছিল। এ জন্য অরিত্রির মা-বাবাকে ডেকে নেন ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ।

তাদের ডেকে মেয়ের সামনেই অপমান করে বলেন, সিদ্ধান্ত হয়েছে অরিত্রিকে নকলের অভিযোগে প্রতিষ্ঠান থেকে বের করে দেয়া হবে। এ অপমান সইতে না পেরে বাসায় এসে অরিত্রি আত্মহত্যা করে।

পুলিশ ও পরিবারের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার বেলা সাড়ে ১২টায় রাজধানীর শান্তিনগরে সাততলা ভবনের সপ্তমতলায় নিজ ফ্ল্যাটের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় অরিত্রিকে পাওয়া যায়।

এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসকরা অরিত্রিকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই ছাত্রীর গ্রামের বাড়ি বরগুনা সদরে। অরিত্রির বাবা দিলীপ কুমার একজন সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী।

অরিত্রির স্বজনদের দাবি, নকল করেননি অরিত্রী। তারা বলছেন, বাবা-মার অপমান সইতে না পেরে ঘরে ফিরে আত্মহত্যা করে এই কিশোরী।

অরিত্রীর আত্মহত্যার খবরে গত দুদিন ধরে স্কুলের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা।

বিক্ষোভের মুখে ভিকারুননিসার অভিযুক্ত ওই তিন শিক্ষককে বরখাস্তের পাশাপাশি তাদের এমপিও বাতিল এবং তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।