শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত ৬ মন্ত্রণালয়ের বৈঠক সন্ধ্যায়পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ কালউৎকণ্ঠায় শিক্ষার্থীরা এখন ধৈর্যহারাস্কুল-কলেজ খোলার পরিবেশ পর্যালোচনা সভা শনিবারউন্নয়নশীল দেশের কাতারে বাংলাদেশ
No icon

টাঙ্গাইলে সেইফ ফাউন্ডেশনের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার শিরনকাজীতে গরীব ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করে সেচ্ছাসেবী সংগঠন সেইফ ফাউন্ডেশন। শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি। কিন্তু শুধুমাত্র দারিদ্রতার কারণে কখনো কখনো কারো কারো শিক্ষিত হওয়ার স্বপ্ন অধরাই থেকে যায়। কিংবা প্রচন্ড মেধাবী হওয়া সত্বেও প্রয়োজনীয় শিক্ষা উপকরণের অভাবে অনেক শিক্ষার্থী নিজেকে উচ্চতর শিক্ষার আলোয় আলোকিত করতে পারে না। এমন কিছু ছাত্র-ছাত্রীর স্বপ্নকে সাফল্যে দিকে এগিয়ে দিতে সহযোগীতর হাত বাড়িয়েছে সেইফ ফাউন্ডেশন ফর সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট। রবিবার (২১ ফেব্রয়ারী) টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার শিরনকাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করে সেচ্ছাসেবী সংগঠন সেইফ ফাউন্ডেশন। এ সময় ৭০ জন ছাত্র-ছাত্রীকে একসাথে সরা বছরের জন্য প্রয়োজনীয় সকল শিক্ষা উপকরণ দেয়া হয়। একই ভাবে আগামী ৪ বছর একই শিক্ষার্থীদেরকে প্রয়োজনীয় সকল শিক্ষা উপকরণ এবং অন্যান্য সহযোগিতা করা হবে বলে ঘোষনা দেন সেইফ ফাউন্ডেশনের সভাপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষিত হওয়ার যে আনন্দ আমি আপনি পেয়েছি তা পৌঁছে দিতে চাই সকল সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে। সেইফের কার্যক্রমে সহায়তা দানকারী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি নিজ নিজ অবস্থান থেকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান।

প্রধান অথিতি, বিশিষ্ট সমাজ সেবক জনাব আলহাজ্ব মাওলানা নাজমুল হক তার বক্তৃতায় বলেন, বিদ্যালয় থেকে বিনামূল্যে বই পাওয়ার পর সারাবছর জুড়ে স্কুল ব্যাগ খাতা, কাগজ, কলম, পেন্সিল, জ্যামিতি বক্স, ক্যালকুলেটর সহ অনান্য প্রয়োজনীয় শিক্ষা উপকরণ এর অভাবে এ এলাকার অনেক দরিদ্র শিক্ষার্থী শিক্ষার আনন্দ থেকে বঞ্চিত। উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন তাদের কাছে দুস্বপ্ন। সুবিধবঞ্চিত শিশুদের স্বপ্ন বিনির্মানে সেইফ ফাউন্ডেশন এর এই আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, একসাথে সারা বছরের প্রয়োজনীয় সব শিক্ষা উপকরণ হাতে পেলে অন্তত এই ক্লাশ লেখাপড়া চালিয়ে নেওয়ার মানসিকতা তৈরি হয় ছাত্রছাত্রীদের। অভিভাকরাও তখন সন্তানকে কাজে না পাঠিয়ে স্কুলে পাঠাতে সাহস পায়। ফলে ড্রফ আউট কমে আসে। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সেইফ ফাউন্ডেশনের খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শিব্বির হোসাইন রিতুন এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় উক্ত আয়োজনে আরো উপস্থিত ছিলেন শিরন কাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মুকুল হোসেন হুমায়ুন, বানিয়াজান ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ কামরুজ্জামান সপন, ফ্যালকন ভেনচার লিঃ এর পরিচালক কামরুল হুদা শামীম, মিজান ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস এর পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান এবং সেইফ ফাউন্ডেশনের কার্যকরী পরিষদের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন সবুজ ও কার্যকরী পরিষদ সদস্য রিয়াজ, আরিফ, রিয়াদ, রাজন।

উল্লেখ্য, সেইফ ফাউন্ডেশন একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন। যা মানবিক দায়িত্ববোধে নিবেদিত তারুণ্যের যুথবদ্ধ আয়োজন। দারিদ্রতার কষাঘাতে যারা শুধু বেঁচে থাকার সংগ্রামকেই জীবন মনে করে তাদের কাছে অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা, চিকিৎসা সহ মৌলিক মানবিক অধিকারগুলো সহজলভ্য করাই এ সংগঠনের প্রয়াস। দেশের সামাজিক উন্নয়ন ও মানুষের জীবনমানের উৎকর্ষতা সাধনের স্বপ্ন নিয়ে সংগঠনটি দীর্ঘ আট বছর যাবত দেশের বিভিন্ন এলাকায় সুবিধা বঞ্চিত মানুষের কল্যাণে কাজ করে আসছে।