আবাসিক ভবনকে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের অনুমোদন দেবে না রাজউকবিএনপি রাজনৈতিক অবস্থাকে বিষাক্ত করে তুলছে : ওবায়দুল কাদেরশিশুসহ আটক ৪, মেলেনি অস্ত্র-গোলাবারুদ সিদ্দিকুরের চোখে আলো ফেরার সম্ভাবনা কমইসলামের নামে দেশে জঙ্গিবাদ করতে দেবো না: প্রধানমন্ত্রী
No icon

শ্রেষ্ঠ বাজেট, তবে বাস্তবায়ন কঠিন হবেঃ মুহিত

আবারও ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটকে জীবনের শ্রেষ্ঠ বাজেট হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি স্বীকার করেছেন, এ বাজেট বাস্তবায়ন অনেক কঠিন হবে। এমনকি বাজেটে বড় ধরনের সংশোধন প্রয়োজন হতে পারে। শনিবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে একান্ত আলাপে তিনি চলতি অর্থবছরের বাজেট সম্পর্কে এসব কথা বলেছেন।। এসময় সিনিয়র অর্থ সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, ব্যাংকিং ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. ইউনুছুর রহমান, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গর্ভনর ড. ফজলে কবির, এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট বাস্তবায়ন কঠিন হবে। কারণ বড় ধরনের কিছু আয়ের উৎস বাদ দেয়া হলেও বাজেটের আকার পরিবর্তন করা হয়নি। তবে চিন্তা করছি-কি করা যায়।

তিনি বলেন, প্রতিবারের মতো এবারো বাজেট সংশোধন করতে হবে। সংশোধিত বাজেট আগেই দিব, দিতেই হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেকবারই যে বাজেট পেশ হয়, সেটা পাস হয় না। যেটি পাস হয়, সেটি পরিবর্তনের মাধ্যমে হয়। এবারে ভ্যাট এ্যাক্ট স্থগিত রাখা বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। এ কারণে রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জন একটু কঠিন হবে, তবে অসম্ভব হবে না। লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে রাজস্বের উৎস কিছুটা পরিবর্তন করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শুধু আইএমএফ নয়, সকল দাতা প্রতিষ্ঠানসহ সারা দুনিয়াকে বলেছি, গত বাজেটেও বলেছি, ২০১৭ সালে ভ্যাট আইন কার্যকর হবে। কিন্তু সেটা করতে পারেনি। তবে এ কারণে আইএমএফ, বিশ্বব্যাংকসহ দাতা সংস্থার সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোনো নেতিবাচক প্র্রভাব পড়বে না বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আইএমএফ এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। বিশ্বব্যাংক কিছু দিয়েছে। তারাও (আইএমএফ) হয় তো দিবে।

সঞ্চয়পত্রের সুদহার নিয়ে তিনি বলেন, সব সময়ই মার্কেট রেটের চেয়ে সঞ্চয়পত্রের সুদহার একটু বেশি থাকে। এখনও সেটাই থাকবে।

তবে সঞ্চয়পত্রের সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ সীমা থাকা উচিত বলে জানান মন্ত্রী।

উল্লেখ, গত ১ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব করেন। এ বাজেটে আয়ের অন্যতম উৎস ছিল ভ্যাট। চলতি বছরের ১ জুলাই ভ্যাট আইন ২০১২ বাস্তবায়নের কথা ছিল। এ আইন বাস্তবায়িত হলে ভ্যাট খাত থেকে বিপুল পরিমাণ আহরিত হতো। কিন্তু পরে এই আইনের বাস্তবায়ন স্থগিত রেখে প্রস্তাবিত বাজেট পাশ করা হয়। কিন্তু তাতে আয়-ব্যয় কোনোটিই কমানো হয়নি। ভ্যাট আইন ২০১২ এর বাস্তবায়ন স্থগিত হয়ে যাওয়ায় এ খাত থেকে রাজস্ব আয়ের পরিমাণ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা কমে যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট পেশ করার আগে থেকেই অর্থমন্ত্রী বলে আসছিলেন, এ বাজেটটি হবে তার জীবনের শ্রেষ্ঠ বাজেট। বাজেট ঘোষণার পরও মন্ত্রী এ দাবি করেন।