রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন স্থগিতভোট আর পেছাচ্ছে নানির্বাচনী প্রতীক জানাতে ইসিতে যাচ্ছে ঐক্যফ্রন্টনির্বাচনের কারণে উইন্ডিজ সিরিজে মাশরাফির খেলা অনিশ্চিতজামিন পেলেন আলোকচিত্রী শহিদুল
No icon

দুদক কর্মকর্তা পরিচয়ে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ১

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে মোহাম্মদ ফয়েজ উদ্দীন ওরফে ফয়সল রানা নামের এক প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে দুদক। আজ বুধবার রাজধানীর গুলিস্তানের একটি হোটেলের সামনে থেকে দুদক পরিচালক মীর জয়নুল আবেদিন শিবলীর নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি টিম তাকে গ্রেপ্তার করে। নারায়ণগঞ্জে ভূমি সহকারী মো. আব্দুল জলিলকে মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ইতিমধ্যেই বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিয়েছ ফয়সালের নেতৃত্বে ওই চক্রটি। এ ঘটনায় রাজধানীর পল্টন থানায় ভুক্তভোগী আব্দুল জলিল বাদি হয়ে একটি মামলা করেছেন। দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার খাগকান্দা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. আব্দুল জলিলের কাছে ফয়সল রানা নিজেকে দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে দুদকে উত্থাপিত অভিযোগ রেহাই দিতে সাত লাখ টাকা দাবি করেন। সেটা না করলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়ার হুমকি দেয়।

ওই ভূমি সহকারী কর্মকর্তা চাকরি হারানোর ভয়ে দুই মাস আগে দুদকের কথিত কর্মকর্তা ফয়সল রানাকে দুই লাখ টাকা দেন। কিছুদিন পর বিকাশের মাধ্যমে আরও ২০ হাজার টাকা দেন। সর্বশেষ দুদকের ওই ভূয়া কর্মকর্তা মো. আব্দুল জলিলের কাছে বাকি ৫ লাখ টাকা দাবি করলে তিনি দুদককে জানান। এরই ধারাবাহিকতায় দুদক ফাঁদ পেতে গুলিস্তান এলাকা থেকে ওই প্রতারককে গ্রেপ্তার করে।