আবাসিক ভবনকে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের অনুমোদন দেবে না রাজউকবিএনপি রাজনৈতিক অবস্থাকে বিষাক্ত করে তুলছে : ওবায়দুল কাদেরশিশুসহ আটক ৪, মেলেনি অস্ত্র-গোলাবারুদ সিদ্দিকুরের চোখে আলো ফেরার সম্ভাবনা কমইসলামের নামে দেশে জঙ্গিবাদ করতে দেবো না: প্রধানমন্ত্রী
No icon

চালকের আসনে দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রথম টেস্টে হারার পর ট্রেন্ট ব্রিজে দারুণভাবে দাঁড়িয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এখন পর্যন্ত চালকের আসনেই আছে প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয় দিন শেষে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১ উইকেটে হারিয়ে তুলেছে ৭৫ রান। তাতে ২০৫ রানের লিড নিয়ে ফেলেছে ফাফ ডু প্লেসিসের দল।
৬ উইকেটে ৩০৯ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে এদিন সুবিধা করতে পারেননি প্রোটিয়াদের লোয়ার-অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। ৩৩৫ রানেই অলআউট হয়ে যায় তারা। জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নামা স্বাগতিক ইংল্যান্ড অলআউট হয় ২০৫ রানে।
নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়া বোলারদের তোপে পড়ে ইংল্যান্ড। দুই ওপেনার দুই অঙ্কই ছুঁতে পারেননি। অ্যালিস্টার কুক ৩ রান করেন। অপর ওপেনার জেনিংস তো রানের খাতাই খুলতে পারেননি। ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান জো রুট। বলতে গেলে অধিনায়কের লড়াইটাই ছিল ইংল্যান্ডের বড় পাওয়া। আর কেউ পারেননি ফিফটি করতে। উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টো খেলেছেন ৪৫ রানের ইনিংস। গ্যারি ব্যালেন্সের ব্যাট থেকে এসেছে ২৭ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন ক্রিস মরিস ও কেশব মহারাজ। দুটি করে উইকেট ঝুলিতে জমা করেছেন মরনে মরকেল ও ভারনন ফিল্যান্ডার। ১৩০ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে দক্ষিণ আফ্রিকা। এদিন তারা হারিয়েছে শুধু হেইনো কুনের উইকেটটি। জেমস অ্যান্ডারসনের বলে জো রুটের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরা কুন করতে পেরেছেন মোটে ৮ রান।

দ্বিতীয় উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৫৭ রানের জুটি গড়ে দিন পার করেন ডিন এলগার ও হাশিম আমলা। ডিন এলগার ৩৮ ও হাশিম আমলা অপরাজিত আছেন ২৩ রান নিয়ে।