বর্জ্য অপসারণে কতটা প্রস্তুত ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন?ঈদের খুশি নেই, ছেলের কবরের পাশে বসে কাঁদছেন রিফাতের মানিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় প্রস্তুত শোলাকিয়াকোরবানির পশু জবাই ও মাংস প্রস্তুতে ২৫% খরচ বহন করবে ডিএনসিসিঈদের সকালে সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী
No icon

বেতন অর্ধেক না নিলে ২৪ ঘণ্টাতেই হাথুরুর বিদায়!

কদিন আগে বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করেছে শ্রীলঙ্কা, চন্ডিকা হাথুরুসিংহে যে একটু স্বস্তিতে থাকবেন, সে উপায় নেই! পরিস্থিতি এমনই দাঁড়িয়েছে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে শ্রীলঙ্কা থেকে হাথুরুর বিদায়। শ্রীলঙ্কার ক্রীড়া মন্ত্রী অবশ্য এক শর্তে হাথুরুকে কোচের পদে রাখতে রাজি। আগের তুলনায় এই কোচকে নিতে হবে অর্ধেক বেতন। বাংলাদেশের বিপক্ষে টাটকা সাফল্যের পর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি) হাথুরুকে আরেকটু সুযোগ দেওয়ার পক্ষে। খুব বেশি দিন হয়নি হাথুরু কোচ থাকার সময়ই দক্ষিণ আফ্রিকাকে তাদেরই মাটিতে টেস্টে হারিয়ে ইতিহাস গড়েছিল শ্রীলঙ্কা। তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার বিপক্ষেও জনমত আছে। এসএলসি ধীরে চলো নীতিতে এগোচ্ছে দেখে খেপে গিয়ে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়া মন্ত্রী হারিন ফার্নান্দো চিঠি পাঠিয়ে জানতে চেয়েছেন, হাথুরুর ব্যাপারে কী করা হলো। সেই চিঠিতে দেশটির আইন বলে প্রাপ্ত ক্ষমতা ব্যবহারের প্রচ্ছন্ন হুমকিও দিয়েছেন মন্ত্রী। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তিনি একটা ফলাফল চান।

হাথুরুর বিদায় ঘণ্টা বাজল বলে এ কথা শোনা যাচ্ছে অনেক দিন ধরেই। হারিন ফার্নান্দো এর আগে জানিয়েছেন, হাথুরুর সাফল্যের যা হার, তাতে মাসে তাঁকে ৪০ হাজার ডলার (প্রায় ৩৩ লাখ ৭৮ হাজার টাকা) বেতন নেওয়ার পক্ষে নন তিনি। এর চেয়ে কম টাকায় অনেক আন্তর্জাতিক মানের কোচ নাকি তাঁদের সঙ্গে যোগযোগ করছেন। এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি) প্রধানকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশও দিয়েছিলেন। তবে বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করার পর এসএলসি ক্রীড়া মন্ত্রীকে অনুরোধ করেছে হাথুরুর বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করতে।

হারিন ফার্নান্দোর কথা হচ্ছে, হাথুরুকে তাঁরা রাখতে পারেন, তবে মাসে ৪০ হাজার ডলারে নয়, আমি সমঝোতার কথা বলেছি। আগের চুক্তি-সমঝোতা আর চলবে না। সবাইকে বলেছি পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তিক করে প্রণোদনা পাবেন তিনি। শ্রীলঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রী গত সপ্তাহেই বলেছিলেন, হাথুরুর অধীনে তাঁরা মাত্র ৩৫ শতাংশ জয় পেয়েছে। এই স্বল্প সাফল্যে একজন কোচকে মোটা অঙ্কের বেতন দিতে তাঁরা রাজি নন। অন্য দিকে হাথুরুর অর্ধেক বেতনে নাকি শ্রীলঙ্কার কোচ হতে আগ্রহী এমন নামকরা অনেক আন্তর্জাতিক কোচ আছেন। তাহলে শুধু শুধু হাথুরুকে কেন এত বেতন দিয়ে তাঁরা পুষবেন?

নির্দেশ দেওয়ার পরও কোনো সিদ্ধান্ত নিতে না পারায় আজ এসএলসিকে চিঠি দিয়ে হারিন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হাথুরুর বিদায় অথবা নতুন সমঝোতা-চুক্তি বিষয়ক সিদ্ধান্ত জানতে চেয়েছেন। নিউজিল্যান্ড সিরিজেও যদি হাথুরুকে এভাবে রাখা হয় তিনি তাঁর ক্ষমতা ব্যবহার করে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকিও দিয়ে রেখেছেন। মানেটা পরিষ্কার, পরের সিরিজের আগেই হাথুরুর ব্যাপারে একটা সিদ্ধান্ত নিতে চাপ দিচ্ছেন তিনি।

হাথুরুর এখনো ১৫ মাসের মতো চুক্তি বাকি আছে এসএলসির সঙ্গে। এখন পর্যন্ত ছাঁটাই গুঞ্জনে তাঁর মন্তব্য, এসব কিছুই তিনি জানেন না। তিনি শ্রীলঙ্কার কোচ হিসেবে কাজ চালিয়ে যেতে চান। তবে সেটি মাসে ১৫ লাখ টাকা বিনা প্রশ্নে ছেড়ে দিয়ে নয় নিশ্চয়ই!