তারেক দেশে ফিরবেন বীরের বেশে: মোশাররফতসলিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলাবিয়ের উপহার 'বাক্সবোমা'য় বরের মৃত্যু, গ্রেফতার ১ ভারতের পক্ষে কথার বলার অধিকার তো কাদেরকে কেউ দেয়নি: ফখরুল একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে মোদি একটি শব্দও বলেননি, জানালেন কাদের
No icon

আ.লীগের আনন্দ মিছিল থেকে হারুনকে গুলি করা হয়: খসরু

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের আনন্দ মিছিল থেকে পরিবহন ব্যবসায়ী ও যুবদল নেতা হারুন চৌধুরীকে গুলি করে মেরে ফেলা হয়েছে আর এটি আওয়ামী লীগের রাজনীতিরই একটি অংশ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। প্রয়াত হারুন চৌধুরীর বাসায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে স্বজনদের সঙ্গে দেখা করার পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন আমীর খসরু। এ সময় নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, দিনদুপুরে হারুন হত্যাকাণ্ডের ১২ দিন পরও পুলিশ কোনো আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি। চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে পুলিশের ভূমিকা রহস্যজনক উল্লেখ করে এর দায়দায়িত্ব পুলিশকে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কারা করেছে এ ব্যাপারে তো সন্দেহ নাই। তাহলে গ্রেফতার করতে অসুবিধা কোথায়? শোকসভা করতে অসুবিধা কোথায়? প্রতিবাদ পর্যন্ত করতে পারছি না। সুতরাং আমি পরিষ্কার করে বলছি যদি তাদেরকে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনা না হয়, তাহলে জনগণ মেনে নেবে না। তার দায়-দায়িত্ব এখানকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিতে হবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগের আনন্দ মিছিল থেকে তো গুলি করেছে। এটা আওয়ামী লীগের রাজনীতিরও একটি অংশ। মিছিল থেকে গুলি করেছে তো এবং একটা লোক প্রতিবাদ করে নাই। ওখানে স্থানীয় কাউন্সিলর উপস্থিত ছিল, নেতৃবৃন্দ ছিল, একটা লোক প্রতিবাদ করে নাই। তাদের সামনে গুলি করে মেরে ফেলেছে।’
উল্লেখ্য, গত ৩ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের কদমতলী এলাকায় পরিবহন ব্যবসায়ী ও সদরঘাট থানা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক হারুন চৌধুরীকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। সেদিন প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, হত্যাকাণ্ডের সময় স্থানীয় যুবলীগের একটি আনন্দ মিছিল ঘটনাস্থল অতিক্রম করে। মিছিলটি হারুনের অফিস অতিক্রম করামাত্র কয়েকটি গুলির শব্দ পাওয়া যায়। এরপর গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন হারুন।

আরো পড়ুন