রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন স্থগিতভোট আর পেছাচ্ছে নানির্বাচনী প্রতীক জানাতে ইসিতে যাচ্ছে ঐক্যফ্রন্টনির্বাচনের কারণে উইন্ডিজ সিরিজে মাশরাফির খেলা অনিশ্চিতজামিন পেলেন আলোকচিত্রী শহিদুল
No icon

শিশুদের সৃজনশীলতা বাড়ায় ছবি আঁকা

প্রকৃতিগত ভাবেই শিশুরা শিল্পের নানা বিষয় যেমন-ছবি আঁকা, গান, পেইটিং, মঞ্চ এসব পছন্দ করে। কিন্তু স্কুলগুলোতে বাজেটের ঘাটতি দেখা দিলে এগুলোর আর চর্চা হয় না। কিন্তু শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য শিল্প খুবই জরুরী। শিল্পের প্রতিটি বিষয়ই শিশুদের সৃজনশীল করতে সাহায্য করে। মানুষের মস্তিষ্কে দুইটা পার্ট থাকে। একটা বামে, আরেকটা ডানে। বাম পাশের মস্তিক ব্যবহার করা যুক্তি এবং বিশ্লেষণধর্মী সব ভাবনার জন্য। অন্যদিকে ডান পাশের মস্তিস্ক উপলব্ধি, অন্তর্দৃষ্টি এবং সৃজনশীলতার জন্য ব্যবহৃত হয়। মস্তিষ্কের গঠনের জন্য দুই অংশেরই একসঙ্গে কাজ করা উচিত। ছবি আঁকা শিখলে শিশুদের মস্তিষ্কের যেসব উপকার হয়

১. শিশুরা খোলা মনে সৃজনশীল চিন্তা করতে শেখে

২. তাদের কল্পনাশক্তি বাড়ে

৩. শিশুরা যেকোন বিষয় দেখে বর্ণনা, বিশ্লেষণ এবং ব্যাখ্যা করতে শেখে

৪. কথা ছাড়াই নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করতে শেখে শিশুরা ছবি আঁকার মাধ্যমে

৫. কোন ছবিতে কোন রঙ ব্যবহার করবে, কীভাবে একটা প্রাণির সঙ্গে আরেকটা প্রাণির সংযোগ তৈরি করবে –ছবি আঁকতে গেলে শিশুরা এসব চিন্তা করে। এভাবে তাদের মস্তিষ্কের বিকাশও হয়। সূত্র: রেইসেসমার্টকিড