ট্রাম্পের জয় চেয়েছিলাম : পুতিনষড়যন্ত্র চলছে চোখ-কান খোলা রাখবেন: নাসিম‘আমার মেয়েকে রাত ১টায় নিজের রুমে ডেকে নেয় চিকিৎসক’খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়ে আদেশ ২৯ আগস্টগণতন্ত্র না থাকলে বিএনপি সমালোচনা করতে পারত না: কাদের
No icon

মিয়ানমারে ৬৭০০ রোহিঙ্গাকে হত্যা করেছে সেনাবাহিনী

বিশ্বজুড়ে শরণার্থীদের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত আন্তর্জাতিক সংগঠন ডক্টরস উইদাউট বর্ডার বৃহস্পতিবার এক তথ্যে জানিয়েছে, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী কয়েক সপ্তাহে ৬ হাজার ৭০০ রোহিঙ্গাকে হত্যা করেছে। ডক্টরস উইদাউট বর্ডার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতন শুরুর প্রথম চার সপ্তাহেই সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের ৬ হাজার ৭০০ জনকে হত্যা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৭৩০ জন পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু। গত ২৫ আগস্ট থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংগঠনটি নিজেদের করা জরিপের ভিত্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে। সংগঠনটি জানিয়েছে, বাংলাদেশে অবস্থানরত শরণার্থীশিবিরে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ২ হাজার ৪৩৪টি পরিবারের ১১ হাজার মানুষের সঙ্গে তারা সরাসরি কথা বলেছে। এই পরিবারগুলোর সবাই বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আগমনের শুরুর দিকেই সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে পৌঁছায়। জরিপের তুলনায় রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর ওপর অত্যাচার ও মৃত্যুর হার প্রকৃত অর্থে আরও বেশি হবে বলে তাদের দাবি।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর অত্যাচার, নিধন ও অগ্নিসংযোগে তাদের অনুমানে সর্বমোট নয় হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে তারা মনে করছে। এদের মধ্যে ৭২ শতাংশ মানুষ সরাসরি নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

বিশ্বজুড়ে শরণার্থীদের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত আন্তর্জাতিক সংগঠন ডক্টরস উইদাউট বর্ডার জানিয়েছে, আগস্ট মাস থেকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর তাণ্ডবের কারণে এ পর্যন্ত প্রায় ৬ লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।