পাবনায় আ.লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা আটক প্রিন্সদের নির্যাতনে মার্কিন নাগরিক ভাড়া! মুক্তি পেলেন হাফিজ সাঈদ২১ দফা কর্মসূচী নিয়ে জনগণের দোড়গোড়ায় যেতে হবে: মেনন‘পকেট ভারী করতে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি’
No icon

গৃহকর্ত্রীর সঙ্গে গৃহকর্মীর যুদ্ধ...

গৃহকর্ত্রী গেছেন যোগব্যায়ামের ক্লাসে আর বাচ্চা মাঠে খেলতে। ঘরের সব কাজ চুপচাপ করছেন গৃহকর্মী। রাতে বাড়িতে এসে একটা ছিমছাম শান্তি পাচ্ছেন পরিবারের সদস্যরা। এমনটা খুব স্বাভাবিক দৃশ্য ভারতের অনেক পরিবারে। মোটামুটি উপার্জন থাকলেই বাড়িতে গৃহকর্মী রাখে অনেক ভারতীয় পরিবার। চাকরি ও সন্তান পালনের জন্য এটা এখন বিলাসিতার চেয়ে প্রয়োজনই বেশি। তবে গৃহকর্ত্রীর সঙ্গে গৃহকর্মীর তিক্ত-মধুর সম্পর্ক চলে আসছে যুগ যুগ ধরেই। গৃহকর্ত্রীরা বলেই থাকেন, এদের ছাড়া কাজও হয় না, আবার এদের সামলানোও মুশকিল। গত বুধবার নয়াদিল্লির অদূরে নয়দার এক বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সে ধুন্ধুমার কাণ্ড বেধে যায় গৃহকর্ত্রীর সঙ্গে গৃহকর্মীর। আর তা পরে রূপান্তরিত হয় বিশাল বিক্ষোভে। ঘটনার সূত্রপাত ‘চুরি’ কেন্দ্র করে। হার্সু শেঠি, পেশায় স্কুলশিক্ষক। ঘরের কাজের জন্য জোহরা বিবি নামের এক গৃহকর্মী রয়েছে তাঁর। গত মঙ্গলবার রাতে শেঠির অভিযোগ, বিবি তাঁর ঘরে থাকা ১৭ হাজার রুপি চুরি করেছেন। তবে বিবি জানান, তাঁকে দুই মাস ধরে বেতন দেওয়া হচ্ছে না। তাই তিনি বেতন বাবদ ১০ হাজার রুপি নিয়ে নিয়েছেন। বিবির বেতন মাসে সাড়ে ৩ হাজার রুপি। এবার দুই পক্ষের ঝগড়া।

এদিকে বিবিকে ঘরে আটকে রাখা হয়েছে, পাশের ফ্ল্যাটের গৃহকর্মীর কাছ থেকে এমন খবর পান তাঁর স্বামী। পরদিন সকালে শত শত বস্তিবাসী নিয়ে শেঠির বাড়িতে আক্রমণ চালান তাঁরা। লাঠিসোঁটা এমনকি ধারালো অস্ত্র ছিল তাঁদের হাতে। মুখে বলতে থাকেন, ‘মেরেই ফেলব ওকে’। তাঁরা শেঠির বাড়িতে ঢুকে আসবাব, কাচের জিনিস সব ভাঙচুর করতে থাকেন। ভয়ে শেঠি পরিবার আশ্রয় নেয় শৌচাগারে।

এমন ধুন্ধুমার অবস্থায় অ্যাপার্টমেন্টের ২ হাজার ৭০০ পরিবার এগিয়ে আসে। প্রতিবাদে তাঁরা তাঁদের গৃহকর্মীকে ঘরে আটকে রেখে বাইরে বের হয়ে আসেন। চারদিকে হইচই, চিল্লাচিল্লি, অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ—এমন পরিস্থিতি। পরে পুলিশ, অ্যাপার্টমেন্টের দায়িত্বরত কর্মীদের মাধ্যমে সমাধান হয় ঘটনার। শোনা হয়, শেঠি ও বিবি দুজনের কথাই। শেঠি বলেন, কখনো খারাপ ব্যবহার করা হয় না বিবির সঙ্গে। এমনকি কাজ শুরুর আগে নিজের হাতে চা বানিয়ে বিবিকে খাওয়ান তিনি। বিবি জানান, দুই মাস ধরে তাঁর বেতন দেওয়া হচ্ছে না।

এমন অবস্থায় অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দারা আর কোনো গৃহকর্মী না রাখাই শ্রেয় মনে করছেন। ঘরের কাজ করতে সকালে ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠছেন। কিনছেন ইলেকট্রনিক পণ্য।

ভারতে গৃহকর্মীর সঙ্গে গৃহকর্ত্রীর ঝগড়া, দ্বন্দ্ব নতুন কিছু নয়। তবে, এত বিশাল বিক্ষোভ এর আগে দেখা যায়নি। এ ঘটনায় বস্তিবাসী অনেকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। তবে হার্সু শেঠির বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস।