মিয়ানমারের সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ায় বিদ্যুত সংযোগ 'রোহিঙ্গাদের জন্য সরকারের সব ধরনের পদক্ষেপই সফল হয়েছে'কিম জং উন আর বেশি দিন নেই: ট্রাম্পবাড্ডায় আমিন মোহাম্মদ গ্রুপ ও প্রতিপ গার্মেন্টসের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২ ১২ বলেই দ্বিতীয় ফিফটি তুলে নিলেন মঈন!
No icon

গাড়ির এসিতেও হতে পারে ক্যান্সার!

বাসা-অফিস সবখানেই এসির বাতাস না হলে আজকাল চলেই না। রাস্তায় বের হলেও চাই এসির বাতাস। গাড়িতে উঠেই তাই এসি অন করা করা এখন সাধারণ ব্যাপার। তবে এই অভ্যাস ডেকে আনতে পারে মহবিপদ! হ্যাঁ, এমনই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। গাড়ি গ্যারাজে পার্ক করে রাখা অবস্থায় কাচ বন্ধ রাখা হয়। ফলে এ অবস্থায় গাড়িতে ৪০০-৮০০ মিলিগ্রাম বেঞ্জিন জমা হয়। যদি গা়ড়ি রোদে পার্ক করা থাকে এবং তাপমাত্রা যদি ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হয় তাহলে বেঞ্জিনের মাত্রা বেড়ে যায় ২-৪ হাজার মিলিগ্রাম পর্যন্ত হতে পারে। যা আমাদের শরীরের সহ্য ক্ষমতার থেকে প্রায় ৪০ গুণ বেশি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বদ্ধ গাড়িতে বসলে শ্বাসের সঙ্গে এই বেঞ্জিন শরীরে ঢোকে। যা লিভার, হাড়ের টিস্যু ও কিডনির ক্ষতি করে। আর এয়ার কন্ডিশনার (এসি) অন করার পর ঠান্ডা হাওয়া ছাড়া শুরু করার আগে গরম হাওয়া বের করে দেয়। সেই সঙ্গেই জমে থাকা বেঞ্জিনও বের করতে থাকে। যা শরীরে ঢোকে এবং ক্যান্সার হতে পারে।